News Title: বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ১০ লাখ ছাড়াল

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়েছে। করোনার সার্বক্ষণিক তথ্য রাখা জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ করোনায় মৃত্যু ১০ লাখ ৮২৫ জনে দাঁড়িয়েছে। 

এছাড়া মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৩২ লাখ ৭৯ হাজার ৪৮৮ জন। জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য মতে, করোনায় বিশ্বে মৃত্যু ১০ লাখের মধ্যে প্রায় অর্ধেক মারা গেছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল এবং ভারতে। 

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যুক্তরাষ্ট্রে। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৭১ লাখ ৪৮ হাজার ৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৫ হাজার ৬৯ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে থাকলেও মৃত্যু বিবেচনায় দেশটির অবস্থান দ্বিতীয়। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৪৭ লাখ ৪৫ হাজার ৪৬৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৪২ হাজার ৫৮ জনের।


End of Today's News

প্রসবের পর পিরিয়ড বা মাসিক কখন শুরু হয়

বাচ্চা জন্মামোর পরে নতুন মায়েদের পিরিয়ড সার্কেলে অনেক পরিবর্তন আসে। অনেকের যেমন দেরিতে পিরিয়ড শুরু হয়। আবার অনেকের অন্য ধরনের পরিবর্তন আসে। এমনটা অনেক কারণে হয়ে থাকে। তবে এ রকম হওয়ার পিছনে কোনও অস্বাভাবিকতা নেই। তাই অকারণ চিন্তা করবেন না। প্রসবের আগে ও পরে মায়ের শরীরে অনেক পরিবর্তন আসে। যার প্রভাবে অনেক কিছু বদলে যেতে শুরু করে। তারই একটি হল পিরিয়ড সার্কেল। এই সময় অনেক মা

[Continue Reading ...]

মায়ের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কতটা এগিয়ে আমরা?

আমাদের দেশের মায়েরা নিজেদের স্বাস্থ্য নিয়ে কতটা সচেতন? বেশির ভাগ পরিবারেই দেখা যায়, নারীরা পরিবারের সব সদস্যের খেয়াল রাখতে পারেন—শুধু নিজের ব্যাপারে যত্নের প্রতি উদাসীন। এর পেছনে কাজ করে নানান ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামাজিক প্রেক্ষাপট। এরপরও দিন বদলেছে, নারীরা বর্তমানে বিগত কয়েক বছরের তুলনায় অনেকটাই সচেতন। চিকিৎসাব্যবস্থাও আরও উন্নত হয়েছে। ফলে যেসব রোগে আগে মানুষ মারা

[Continue Reading ...]

গর্ভকালিন অবাঞ্চিত দাগের সমস্যাঃ

গর্ভকালীন শরীরের ফাটা দাগ নির্মূল করার তেমন কোনো স্থায়ী উপায় নেই।
তবে গর্ভকালীন সময়ে চিকিৎসকরা গর্ভবতী মায়েদের কিছু ক্রিম ও তেল সাজেস্ট করে থাকেন। এক্ষেত্রে আপনি একজন গাইনী বিশেষজ্ঞের সাথে
সরাসরি যোগাযোগ করে এগুলোর নাম জেনে নিতে পারেন। এছাড়া প্রাকৃতিক
কিছু উপাদান ব্যবহারেও এই ফাটা দাগ পুরোপুরি নির্মূল না হলেও কিছুটা হালকা হতে সহায়তা করে। নিচে এই বিষয়ক
পোস্ট দে

[Continue Reading ...]