ব্রুণ কি? কেন হয়? ব্রুণ থেকে মুক্তির উপায় ও চিকিৎসা

আমরা জানবো ব্রুণ কি?

সেবা সিয়াস গ্রন্থি সেবাম নামে এক প্রকার তৈলাক্ত পদার্থ নিঃসরণ করে যা ত্বককে মসৃণ রাখে। কোনো কারণে সেবা সিয়াস গ্রন্থির নালির মুখ বন্ধ হয়ে গেলে সেবাম নিঃসরণের বাধার সৃষ্টি হয় এবং তা ভেতরে জমে ফুলে উঠে যা ব্রণ (acne) নামে পরিচিত। ব্রুণ তৈরি হওয়ার পর্যায়ে এর মুখ বন্ধ থাকায় সাদাটে দেখায়। বন্ধ নালির মুখে জমা কৃত কোষগুলি আস্ত আস্তে কালো হয়ে গেলে তাকে কালো ফোঁটা ব

[Continue Reading ...]

মেয়েদের প্রচুর সাদাস্রাব-এর কারণ ও প্রতিকার!

মেয়েদের জন্য সাদাস্রাব খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার। কিন্তু অতিরিক্ত এবং দুর্গন্ধ যুক্ত সাদাস্রাব খুব বিব্রতকর এবং জরায়ুর মুখে ইনফেকশন হওয়ার অন্যতম কারন। চিকিৎসা বিজ্ঞানে অতিরিক্ত এবং দুর্গন্ধ যুক্ত সাদাস্রাবকে লিউকরিয়া বলে। সাদাস্রাব হল যখন কোন মেয়ে অথবা নারীর জরায়ু থেকে ঘন সাদা অথবা হলুদ রঙ এর স্রাব নিগ্রত হয়। সাদাস্রাব খুব গুরুত্বপূর্ণ,আপনার যৌন স্বাস্থ্যের সমত

[Continue Reading ...]

জরায়ু ক্যানসার কেন হয়?

ক্যানসারে আক্রান্ত নারীদের প্রায় এক-চতুর্থাংশই ভুগে থাকেন জরায়ুর ক্যানসারে। সচেতনতার অভাবে এবং লজ্জার কারণে আমাদের দেশে নারীরা এটা নিয়ে আলোচনা করতেই চান না। অথচ প্রতিবছর বাংলাদেশে ১২০০০ মহিলা এ রোগে আক্রান্ত হন। ফলে জীবনঘাতী এই ক্যানসার কেড়ে নিচ্ছে বহু প্রাণ।

চলুন আজ জেনে নেই বিশেষজ্ঞ 
চিকিৎসকদের মতে জরায়ুর ক্যানসার
কেন হয়ঃ

১. জরায়ুর ক্যানসারের জন্য মূলত হ

[Continue Reading ...]

গর্ভধারণ সময়ের জানা-অজানা তথ্য

★ গর্ভধারণ কারে কয়েকটি সাধারণ পরিবর্তন দেখা যায়।
সাধারণত গর্ভ গুরু হয় পরিপক্ব ডিম্ব ও একটি শুক্রের মিলনের ফলে। এ প্রক্রিয়াকে নিষিক্তকরণ বলে। সহবাসের সময় শুক্রকীট স্ত্রীর যোনিতে পতিত হয় এবং তা জরায়ুর ভিতর দিয়ে ডিম্ববাহী নালীর মধ্যে প্রবেশ করে পরিপক্ ডিম্বের সাথে মিলিত হয়ে ডিম্বকে নিষিক্ত করে এবং তা নিষিক্ত ডিম্ব ধীরে ধীরে নালী দিয়ে ৫-৭ দিন পর জরায়ুতে ফিরে আসে এবং গর্ভ সঞ্

[Continue Reading ...]

ঘুমের টিপস্

  • প্রতিদিন একই সময়ে বিছানায় যান এবং একই সময়ে উঠার অভ্যাস করুন যাতে আপনার মস্তিষ্ক ও শরীর মিলে Body alarm clock তৈরি হয়।
  • বিছানা ঝেড়ে শুবেন।শোবার ঘরে যেসব ডিজিটাল জিনিস নীল রশ্মি নিঃসরন করে যেমনঃ TV, Tablet,Cell  phone ,Computer, Digital Clock এসব switch off করুন।
  • রুমের তাপমাত্রা ২৪-২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রাখুন ও যেকোন রকমের শব্দ মুক্ত রাখুন।
  • বালিশের উচ্চতা এমন রাখুন যাতে মাথা ও ঘাড় সমান উচ্চতায় থাকে।দুই হাঁটু

    [Continue Reading ...]