অতিরিক্ত পরিচ্ছন্নতা কি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমায়?

খালি চোখে দেখলে, আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য পরিচ্ছন্নতা খারাপ নয়। বরং অপরিষ্কার কিছু স্পর্শ করার পরে এবং খাওয়ার আগে ত্রিশ সেকেন্ডের জন্য সাবান ও পানি দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। আবার কিছু বিষয় আছে যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। এমনটাই প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া-

* অতিরিক্ত স্ট্রেসের কারণে আপনার শরীর কর্টিসল তৈরি করতে পারে, যা থেকে ইনফ্লামেশন হতে পারে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল করে তুলতে পারে। স্ট্রেস বা মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন।

* অস্বাস্থ্যকর খাবার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতায় ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে তাই প্রতিদিন স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টি সমৃদ্ধ ডায়েট করুন।

 ধূমপান কখনোই শরীরের জন্য ভালো নয়। ধূমপান এবং অ্যালকোহল গ্রহণ এড়িয়ে চলুন।

* ঠিকমতো ঘুম না হলে তা রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা নষ্ট করতে পারে। তাই প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমানোর অভ্যাস করুন।

* রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী রাখতে প্রতিদিন কমপক্ষে ত্রিশ মিনিট শরীরচর্চা করুন।

হাইজিন হাইপোথিসিস কী
একটি সাধারণ ধারণা হলো, যে শিশুরা শৈশবে বেশি জীবাণুতে আক্রান্ত হয় তাদের শরীরে আরও বেশি শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি হয়। কিছু পর্যবেক্ষণ অনুসারে, উন্নত দেশ বা বড় শহরগুলোতে বেড়ে ওঠা শিশুদের শৈশবে প্যাথোজেনের সংস্পর্শে আসা শিশুদের তুলনায় দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকে। এধরনের ধারণা থেকে হাইজিন হাইপোথিসিসের জন্ম হয়।

তবে এর পিছনে অনেকগুলো কারণ থাকতে পারে এবং তাই তত্ত্বটি পুরোপুরি সঠিক হিসাবে বিবেচনা করা যায় না। বেশ কয়েকটি গবেষণা রয়েছে যা সমর্থন করে যে, নিজেকে অসুস্থ হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য আপনার হাত এবং চারপাশ পরিষ্কার রাখা একটি সেরা উপায়।

বিজ্ঞান কী বলে
এমন কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই যা প্রমাণ করে যে, খুব পরিচ্ছন্ন থাকা বা আপনার চারপাশ ঝকঝকে রাখা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন যে অতিরিক্ত পরিচ্ছন্নতা আপনার রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে, এটি অবশ্য হাইজিন হাইপোথিসিসের ফলস্বরূপ।

সত্যিটা কী
করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে, আমরা গত কয়েক মাস ধরে আমাদের চারপাশের জায়গাগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করছি। ঘরের অন্ধকার কোণ থেকে বিছানা, সোফার নিচের ফাঁকা জায়গা, যেখানে আমরা কালেভাদ্রে পরিষ্কার করতাম, সেগুলোও এখন নিয়মিত পরিষ্কার করছি। শুধু তাই নয়, আমরা দরজার হাতল স্পর্শ করার পরেও একাধিকবার হাত পরিষ্কার করছি এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার ঘষে জীবাণু এবং সংক্রমণ থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এটি অনেকটা ‘নিউ নর্মাল’ হিসেবে আমাদের জীবনযাপনের অংশ হয়ে গেছে। তবে একটি প্রচলিত বিশ্বাস রয়েছে যে, খুব পরিষ্কার হওয়া আপনার প্রতিরোধ ব্যবস্থা নষ্টা করে দিতে পারে। যেহেতু এর বৈজ্ঞানিক কোনো ভিত্তি এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি, তাই সত্যিটা জানার জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে।